www.jhalokathisomoy.com
মুক্তচিন্তার অনলাইন সংবাদপত্র, ঝালকাঠি, ১৯ জানুয়ারী, ২০১৯, ৬ মাঘ, ১৪২৫
শিরোনাম

রুচিশীল দর্শক তৈরিই মূল লক্ষ্য

দেশ | January 13, 2019 - 7:34 pm

৭২ দেশের ২১৮ চলচ্চিত্র নিয়ে চলছে উৎসব। ঢাকায় বসে এমন বড় পরিসরের আয়োজন দেখার সুযোগ তৈরি করে দিয়েছে রেইনবো চলচ্চিত্র সংসদ। গত ১০ জানুয়ারি থেকে ঢাকার সাতটি ভেন্যুতে চলছে ‘সপ্তদশ ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব’। চলবে ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত। উৎসবের একাধিক ভেন্যুতে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে বিভিন্ন বয়সের দর্শক এসেছেন সিনেমা দেখতে। তবে দর্শকের উপচে পড়া ভিড় চোখে পড়েনি। কোনো কোনো মিলনায়তনে আসন ফাঁকাও দেখা গেছে। জাতীয় জাদুঘর মিলনায়তনের সামনে কথা হলো তরুণ চলচ্চিত্র সংসদকর্মী আশিক আহমেদের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘এ ধরনের উৎসবে দর্শকের উপস্থিতি কমই থাকে। এখানে তো ভিন্নধারার সিনেমা দেখানো হচ্ছে। যদি বাণিজ্যিক সুপারহিট, নাচে-গানে ভরপুর সিনেমা দেখানো হতো, তবে দর্শকের ভিড় দেখা যেত। এখন উৎসবে যারা আসছেন, তারা রুচিশীল দর্শক। এমন রুচিশীল দর্শকের সংখ্যা আমাদের বাড়ানো উচিত।’ উৎসবের পরিচালক আহমেদ মুজতবা জামালের কথাতেও একই সুর পাওয়া গেল। তিনি বলেন, ‘রুচিশীল দর্শক তৈরি এই উৎসবের অন্যতম লক্ষ্য। ১৯৯২ সাল থেকে উৎসবের ১৬টি আসর হয়েছে। এবার ১৭তম আসর বসেছে। আমরা মনে করি তিন দশকেরও বেশি সময়ের এই আয়োজনে আমরা সিনেমাপ্রেমী রুচিশীল দর্শক তৈরি করতে পেরেছি।’

যেসব ভেন্যুতে উৎসব

উৎসবে এশিয়ান প্রতিযোগিতা বিভাগ, রেট্রোস্পেকটিভ বিভাগ, বাংলাদেশ প্যানারোমা, সিনেমা অব দ্য ওয়ার্ল্ড, চিলড্রেন্স ফিল্ম, স্পিরিচুয়াল ফিল্মস, শর্ট অ্যান্ড ইনডিপেনডেন্ট ফিল্ম এবং উইমেন্স ফিল্ম বিভাগে ২১৮ চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হচ্ছে। এর মধ্যে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ১২২টি, স্বল্পদৈর্ঘ্য ও স্বাধীন চলচ্চিত্রের সংখ্যা ৯৬টি। উৎসবের ভেন্যু হিসেবে রয়েছে জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তন ও কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তন, কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তন, শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তন, আলিয়ঁস ফ্রঁসেস মিলনায়তন ও যমুনা ব্লকবাস্টার সিনেমা হল।

বিনামূল্যে সিনেমা দেখার সুযোগ

জাতীয় জাদুঘরের মূল মিলনায়তন ও কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়তনে সকাল ১০টা থেকে চলবে শিশুতোষ চলচ্চিত্র। শিশুদের সঙ্গে অভিভাবকরাও আসতে পারবেন। এ ছাড়া সকাল ১০টা, দুপুর ১টা ও বিকেল ৩টার প্রদর্শনী শিক্ষার্থীরা বিনামূল্যে দেখতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পরিচয়পত্র প্রদর্শন করতে হবে। আর সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য টিকিটমূল্য ৫০ টাকা। জাতীয় জাদুঘরের সুফিয়া কামাল মিলনায়তন, আলিয়ঁস ফ্রঁসেস মিলনায়তন ও শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার সব প্রদর্শনী বিনামূল্যে উপভোগ করা যাবে। আসনসংখ্যা সীমিত থাকায় আগে এলে দেখবেন ভিত্তিতে আসন বণ্টন করা হবে। এ ছাড়া যমুনা ব্লকবাস্টার সিনেমাসে কর্তৃপক্ষের নির্ধারিত প্রদর্শনীর বিনিময়ে দর্শকরা উৎসবের চলচ্চিত্রগুলো উপভোগ করতে পারবেন।

পঞ্চম আন্তর্জাতিক উইমেন ফিল্ম মেকারস্ কনফারেন্স

সপ্তদশ ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের অন্যতম আয়োজন ‘পঞ্চম আন্তর্জাতিক উইমেন ফিল্ম মেকারস্ কনফারেন্স’। দুই দিনব্যাপী এ সম্মেলনে অংশ নেয় বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের নারী নির্মাতারা। সম্মেলনের প্রত্যাশা, প্রাপ্তি ও করণীয় নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন অংশগ্রহণকারী ও আয়োজক সংস্থা। এ ছাড়া ১৪ জানুয়ারি প্রথমবারের অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে দিনব্যাপী সেমিনার ‘ওয়েস্ট মিটস ইস্ট’।

উদ্বোধনী সিনেমা ‘দ্য গেস্ট’

গত ১০ জানুয়ারি উদ্বোধনী সন্ধ্যায় প্রদর্শিত হয় ‘দ্য গেস্ট’। তুরস্কে আশ্রয় নেওয়া সিরিয়ান শরণার্থীদের দুঃখ-বিগ্রহ, ত্যাগ ও বঞ্চনার বিষয় নিয়ে সিনেমাটি তৈরি হয়েছে। তুরস্ক-জর্ডানের যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্র ‘দ্য গেস্ট’ পরিচালনা করেছেন তুরস্কের নির্মাতা আন্দাজ হাজানেদারগলু। ১০ বছরের লিনা যুদ্ধে তার মা-বাবা ও পরিবারকে হারায়। সে তার ছোট বোন ও প্রতিবেশী মরিয়মকে নিয়ে অন্য শরণার্থীদের সঙ্গে তুরস্কে রওনা হয়।

ইস্তাম্বুল যাওয়ার পর তারা এক নতুন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়। পুরোপুরি অচেনা এক শহরে লিনার বেঁচে থাকার আপ্রাণ চেষ্টা উঠে এসেছে ছবিটিতে। উৎসবের দ্বিতীয় দিনে প্রদর্শিত হয়েছে শাইখ সিরাজের পরিচালনায় নায়করাজ রাজ্জাককে নিয়ে নির্মিত প্রামাণ্যচিত্র ‘রাজাধিরাজ রাজ্জাক’। প্রদর্শন করা হয় ইমপ্রেস টেলিফিল্মের প্রযোজনায় ‘কমলা রকেট’ ছবিটিও।

 

(দৈনিক দেশ রুপান্তরের খবর/সুতীর্থ /ঝাস)

মুক্তচিন্তার যে কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান এ সাইটের তথ্য বা ছবি ব্যবহার করতে পারবেন, তবে সে ক্ষেত্রে তথ্য সূত্র উল্লেখ করতে হবে-সম্পাদক ঝালকাঠি সময়।